HDFC Bank Business Loan | এইচ. ডি. এফ. সি ব্যাঙ্ক বিসনেস লোন

কি ভাবছেন নতুন বিসনেস শুরু করবেন অথবা আপনার প্রতিযোগীদের সাথে পাল্লা দেওয়ার জন্য আপনার বিসনেস বাড়াবেন? কিন্তু, আটকে যাচ্ছেন কারণ মূলধনের অভাব টাই তো? চিন্তা কিসের যখন সাথে আছে এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক আপনার সাথে। এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক থেকে আপনার প্রয়োজনীয় অর্থ নিয়ে আপনিও পারেন আপনার ব্যবসার বৃদ্ধি ঘটাতে।এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক আপনাকে বিশ্বাস করে টাই আপনার প্রতিটি পদক্ষেপে তারা আপনার সাথে সহযোগিতা করবে এবং আপনার স্বপ্ন পূরণে আপনাকে সাহায্য করবে, আপনার ব্যবসায়িক প্রয়োজন মেটাবে। এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক আপনার প্রতিটি ব্যবসায়িক প্রয়োজন মেটাতে প্রতিযোগিতামূলক সুদের হার, ফ্লেক্সিবল মেয়াদ এবং নূন্যতম ডকুমেন্টে বিসনেস লোন দিয়ে সাহায্য করে থাকে। এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্কের দেওয়া এই লোনের একটি অতিরিক্ত আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্য হল ওভারড্রাফট সুবিধার অ্যাক্সেস, যেখানে আপনার ক্রেডিট প্রোটেকশন প্ল্যানের সাহায্যে শুধুমাত্র ব্যবহৃত লোনের পরিমাণের ওপর সুদ প্রদান করে থাকে । আপনার ব্যবসায় গ্রাহকের পরিবর্তিত চাহিদা, এবং প্রযুক্তিগত অগ্রগতির সঙ্গে আপনার ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের প্রসার ঘটাতে পারেন। কিভাবে করবেন তা আজকের আলোচনার মাধ্যমেই আপনারা জানতে পারবেন।

কারা কারা এই লোনের জন্য আবেদন করতে পারেন?

এইচ. ডি. এফ. সি ব্যাঙ্ক থেকে লোনের আবেদন করতে গেলে আবেদনকারীর নিম্নলিখিত স্বরূপ হতে হবে।

  1. আবেদনকারীর ম্যানুফ্যাকচারিং, ট্রেডিং বা সার্ভিসের ব্যবসা, প্রোপ্রাইটারশিপ , বেসরকারি সংস্থা অথবা পার্টনারশিপ ফার্ম থাকতে হবে ।
  2. এই ব্যবসার টার্নওভার ন্যূনতম 40 লক্ষ টাকা হতে হবে।
  3. 5 বছরের মোট ব্যবসার অভিজ্ঞতা নিয়ে ন্যূনতম 3 বছর এই বর্তমান ব্যবসা চালাতে হবে।
  4. যাদের ব্যবসা গত 2 বছরে লাভজনক ভাবে চলছে।
  5. ব্যবসার মিনিমাম ITR হবে বছরে 1.5 লক্ষ টাকা।
  6. আবেদনকারীর লোনের আবেদন করার সময় অন্ততপক্ষে 21 বছর বয়সী হতে হবে এবং যে সময় লোন পরিশোধ হবে তখন তার বয়স 65 বছরের বেশি হওয়া চলবে না।
এইচ. ডি.এফ.সি. ব্যাঙ্ক থেকে কত টাকা লোন পাওয়া যায়?

এইচ. ডি. এফ. সি. ব্যাঙ্কের বিসনেস লোন নিয়ে আপনার বর্তমান বিসনেসকে আরো বেশি বাড়ানোর জন্য এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক লোন ট্রান্সফারে 15.75% সুদে এবং 0.99% প্রসেসিং ফি তে প্রায় 40 লক্ষ টাকা পর্যন্ত, কিছু কিছু ক্ষেত্রে 50 লক্ষ পর্যন্ত লোন পাওয়া যায় সেটাও আবার কোনো গ্যারেন্টর এবং সিকিউরিটি মানি ছাড়া। যার সাহায্যে ব্যবসাবৃদ্ধি, ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল থেকে শুরু করে আপনার শিশুর পড়াশুনো বা বাড়ির সংস্কার পর্যন্ত আপনার প্রতিটি ব্যবসায়িক চাহিদা পূরণ হবে।

কিভাবে এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক থেকে বিসনেস লোন আপনি পাবেন?

এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ক থেকে বিসনেস লোনের জন্য আবেদন করতে হলে প্রথমেই আপনাকে যেটা করতে হবে তা হলো এইচ. ডি.এফ.সি. ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে লগইন করতে হবে। তারপর আপনার ইমেইল আর ফোন নং দিয়ে রেজিস্টার করতে হবে ফোন এ আসা opt দিয়ে।এরপর আপনাকে বিজনেস লোন এর প্রকল্প নির্বাচন করতে হবে এবং অনলাইনে আবেদন করার জন্য ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনাকে আপনার মোবাইল নম্বর দিতে হবে। এরপর আপনাকে লোন একটি আবেদন করার জন্য একটি পেজ যে যাবতীয় নথি দিয়ে পেজ তা পূরণ করতে হবে। ব্যাঙ্ক সার্ভে করে দেখবে আপনি লোন পাওয়ার যোগ্য কিনা। যদি আপনি লোন পাওয়ার যোগ্য হন তবে আপনি ব্যাঙ্কের একাউন্ট এ আপনার লোনের অর্থ পেয়ে যাবেন।

এইচ. ডি. এফ. সি ব্যাঙ্কে লোন আবেদন করার জনতা কি কি নথি দরকার পরবে?

এইচডিএফসি ব্যাংক থেকে ব্যবসায়িক লোন নেওয়ারজন্য প্রয়োজন
আইডি প্রুফ :- মানে আধার কার্ড, ভোটের কার্ড, পাসপোর্ট থাকলে আরো ভালো।
এড্রেস প্রুফ :- আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, ইলেকট্রিক বিল।
বিসনেস প্রুফ :- আপনার 2 বছরের ট্রানওভার এর কাগজপত্র, ব্যবসায়িক কাগজপত্র।

আপনি এইচ. ডি. এফ. সি ব্যাঙ্ক থেকে বিসনেস লোন থ নিয়ে আপনার ব্যবসাকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারবেন। আপনি এখানে কাজের সুদের হার পাবেন।আপনি যে লোনের পরিমাণ ব্যবহার করছেন কেবলমাত্র তার উপরই আপনাকে সুদ দিতে হবে।তবে আপনার সিভিল স্কোর 750 হতে হবে।

আশা করছি আমাদের এই তথ্য আপনাদের অনেক কাজের লাগবে। ধন্যবাদ

Instant Personal Loan | ইনস্ট্যান্ট পার্সোনাল লোন

2022 te sohoje Personal Loan Paoyar Podhoti | 2022 তে সহজে পার্সোনাল লোন পাওয়ার পদ্ধতি

Leave a Comment